সোনারগাঁও লোক ও কারুশিল্প জাদুঘর নারায়ণগঞ্জ

8 people checked in

টিকেট কেটে গেট দিয়ে প্রবেশ করতেই চোখে পরে মনোমুগ্ধকর কারুকাজ এ নির্মিত সর্দার বাড়ি যা ঈসা খাঁর জমিদার বাড়ি হিসাবে পরিচিত ৷ আর বাড়িটির সামনেই রয়েছে একটি লেক যাতে বাড়িটির প্রতিচ্ছবি নন ফটোগ্রাফারদের ও ফটো তুলতে বাধ্য করে ৷ সর্দার বাড়ি পার হয়ে একটু সামনে গেলেই চোখে পরবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ভাস্কর্য আর তার সামনেই রয়েছে জাদুঘর এর সুবিশাল প্রবেশ পথ ৷ জাদুঘর টিতে স্থান পেয়েছে নানা প্রকার এর হস্তশিল্প, নিত্য ব্যবহার্য পণ্যসামগ্রী, কারুশিল্প, পোড়ামাটির নিদর্শন , লোহার তৈরি নিদর্শন আরো অনেক কিছু ৷ সর্দার বাড়ির সামান্য পূর্বে রয়েছে জয়নুল আবেদীন স্মৃতি জাদুঘর ৷ এই ভবনগুলো ছাড়াও জাদুঘর এলাকাটিতে আরো রয়েছে বিভিন্ন রকমের বৃক্ষ , ভাস্কর্য, পাঠাগার, মনোরম লেক আর লেক এর মাঝে ঘুরে বেড়ানোর জন্য নৌ ব্যাবস্থা ৷ জাদুঘরে দর্শনার্থীরা দেখতে পাবেন বাংলার প্রাচীন সুলতানদের ব্যবহৃত অস্ত্র শস্ত্র, তৈজসপত্র, পোশাক, বর্ম, অলংকার ইত্যাদি।বাংলার প্রাচীন ও মধ্য যুগের লোকশিল্পের অনেক নিদর্শন রয়েছে এখানে, রয়েছে বাংলার প্রাচীন মুদ্রা। কারুপল্লীতে বৈচিত্র্যময় দোচালা, চৌচালা ও উপজাতীয়দের আদলে তৈরি ঘরে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের অজানা, অচেনা, আর্থিকভাবে অবহেলিত অথচ দক্ষ কারুশিল্পীর তৈরি বাঁশ- বেত, কাঠ খোদাই, মাটি, জামদানি, নকশিকাঁথা, একতারা, পাট, শঙ্খ, মৃৎ শিল্প ও ঝিনুকের সামগ্রী ইত্যাদি কারুপণ্যের প্রদর্শনী ও বিক্রয় কেন্দ্র রয়েছে। জাদুঘর প্রবেশের টিকিট মূল্য ২০ টাকা ৷

  • How to go কিভাবে যাবেন নিজেদের গাড়িতে কিংবা গুলিস্তান/যাত্রাবাড়ী থেকে বাসে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সোনারগাঁ মোগড়াপাড়া চৌরাস্তায়। সেখান থেকে অটো/রিকশাযোগে লোক ও কারুশিল্প জাদুঘর। গুলিস্থান স্টেডিয়ামের সামনে থেকে বোরাক A/C, স্বদেশ, অথবা দোয়েল বাসে মোগরাপাড়া চৌরাস্তা, ওখান থেকে রিক্সা অথবা অটোতে যাদুঘর।
  • Lodging কোথায় থাকবেন এখানে রাতে থাকতে চাইলে সরকারি ডাকবাংলোয় অনুমতি সাপেক্ষে থাকতে পারেন।
  • Foods কি খাবেন আশেপাশের খাবারের দোকানে খেয়ে নিতে পারবেন আর অবশ্যই নারায়ানগঞ্জের বিখ্যাত কাইকারটেক হাটের পুতা মিষ্টি চেখে দেখতে ভুলবেন না।
  • Must see অব্যশ্যই দেখবেন N/A

Reviews

(Rate here)

Articles

Find on the Map