বায়তুর রউফ মসজিদ ঢাকা

people checked in

ঢাকার আব্দুল্লাহপুরের ফায়দাবাদে অবস্থিত এই মসজিদটি অল্প কিছুদিন আগে বিশ্বের স্থাপত্য জগতের অনন্য সন্মান "আগা খান এ্যাওয়ার্ড ফর আর্কিটেকচার" সন্মান অর্জন করে নিয়ে আসে বাংলাদেশের জন্য। ২০১৬ সালে এই মসজিদের নকশা করে স্থপতি মেরিনা তাবাসসুম পেয়েছেন আগা খান পুরস্কার। মসজিদটি ৭৫৪ মিটার স্কয়ার জায়গার উপর নির্মিত। জমির মালিকের নাম সুফিয়া খাতুন। সম্পর্কে তিনি এই মসজিদের স্থপতির নানী। এটি ২০১২ সালে নির্মিত হয়। যার নির্মান খরচ ১,৫০,০০০ মার্কিন ডলার। মসজিদটি সম্পুর্ন ইটের তৈরি, কোন রঙ বা প্লাস্টারের কাজ এখানে করা হয় নি। এটি এমন ভাবেই ডিজাইন করা হয়েছে, যার ভেতরে বসেই যেমন ঝকঝকে রোদের দেখা মিলবে, তেমনি ঝম ঝম বৃষ্টিতে এখানে বসেই বর্ষার দারুন আবহ উপভোগ করা যাবে। ভবনটিতে এমন ভাবে বাতাস চলাচলের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে, যার ফলে যে কোন ঋতুতেই মসজিদটির ভিতরের তাপমাত্রা থাকবে প্রায় অপরিবর্তিত। ৪ টি আলো প্রবেশের পথ এবং ভবনের ছাদে গোল ছিদ্র করে এমন ভাবে আলো প্রবেশের ব্যাবস্থা এবং একই সাথে আলো নান্দনিক আলো ছায়ার খেলার ব্যবস্থা করা হয়েছে, যার ফলে দিনের বেলা এখানে কখনোই কৃত্রিম আলোর প্রয়োজন পরবে না। ৮টি পেরিফেরাল কলামের উপর দাড়িয়ে আছে নান্দনিক এই মসজিদ ভবনটি। মসজিদের পাশা পাশি এখানে একটি মক্তব চালু করা হয়েছে।মসজিদটির নির্মাণ শৈলী সুলতানি স্থাপত্য রীতি দ্বারা অনুপ্রাণিত। এবং সনাতন পদ্ধতির ইটের ব্যাবহারের সাথে সমকালীন স্থাপত্য রীতি মিশ্রিত হয়েছে। মসজিদটির সিলিং এর ফুটোগুলো ঠিক যেন আকাশজুড়ে ছড়িয়ে থাকা তারার মেলা। ন্যাচারাল লাইট আর ভেন্টিলেশনের এত চমৎকার কাজ দেখার জন্য ঘুরে আসতে পারেন, ভালো লাগবে।

  • How to go কিভাবে যাবেন উত্তরারর যে কোন পয়েন্ট থেকে রিকসা নিয়ে যাবেন ফায়দাবাদ পেরিয়ে দক্ষিণখান। স্থানীয় কাউকে জিজ্ঞেস করে জেনে নিবেন লোকেশন। ঢাকার যেকোনো স্থান থেকে উত্তরা আব্দুল্লাহপুরে বাস থেকে নেমে রাস্তার পূর্ব পাশের বেড়িবাধ রোডে ঢুকে দেখবেন ব্যাটারিচালিত অটো বা রিকশা দাড়ায় আছে, ট্রান্সমিটার মোড় যাবেন বলে নিবেন ভাড়া ১০-১৫টাকা৷ মোড়ে নেমে যে কাউকে জিগ্যেস করলেই দেখায় দিবে৷ ট্রান্সমিটার মোড় থেকে হাতের বামে গলির ভেতর ১ মিনিট হাঁটলেই চোখে পড়বে মসজিদ।
  • Lodging কোথায় থাকবেন ঢাকার প্রতিটি এলাকায় আবাসিক হোটেলের অভাব নাই। তবে হোটেল ভাড়া অন্যান্য জেলা থেকে তুলনামূলক বেশি। ৫ তারকা হোটেলগুলোর মধ্যে রয়েছে প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁ, হোটেল রুপসী বাংলা, হোটেল লা মেরিডিয়েন, র্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেন ইত্যাদি। কম দামের মধ্যে থাকতে গেলে বংগবন্ধু এভিনিউ এর হোটেল রমনা, ফকিরাপুলের হোটেল হাসান ইন্টারন্যাশনাল অন্যতম। পল্টন, ফকিরাপুল, গুলিস্তান,পুরান ঢাকা এরিয়ায় অনেক সস্তা মধ্যম মানের হোটেল পাবেন।
  • Foods কি খাবেন পুরান ঢাকার কিছু বিখ্যাত খাবারের তালিকা : ১. লালবাগ শাহী মসজিদের সাথে মোহন মিয়ার জুস ২. হোটেল রয়েলের পেস্ত বাদামের সরবত ৩. বেচারাম দেউড়ি রোডে নান্নার মোরগ পোলাও। ৪. কাজি আলাউদ্দিন রোডের হাজির বিরিয়ানি ও হানিফের তেহরি।
  • Must see অব্যশ্যই দেখবেন N/A

Reviews

(Rate here)

Articles

Find on the Map